Home / CPD in the Media / কী কারণে খেলাপি ঋণ বাড়ছে সেটি খুঁজে বের করতে হবেঃ ড. মোয়াজ্জেম

কী কারণে খেলাপি ঋণ বাড়ছে সেটি খুঁজে বের করতে হবেঃ ড. মোয়াজ্জেম

Published in যুগান্তর on Monday, 27 November 2017

দুই দিনব্যাপী ব্যাংকিং সম্মেলন শুরু

খেলাপি ঋণের তথ্য গোপন করছে অধিকাংশ ব্যাংক

ব্যাংকিং খাতে মোট ঋণের সাড়ে ১০ শতাংশ খেলাপি ঋণ দেখানো হচ্ছে। যদিও প্রকৃত খেলাপি ২০ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে। অধিকাংশ ব্যাংক খেলাপি ঋণের তথ্য গোপন করছে। এছাড়া খেলাপি ঋণ বাড়ার প্রকৃত কারণও স্পষ্ট নয়। রোববার থেকে রাজধানীর মিরপুরে বিআইবিএম অডিটোরিয়ামে শুরু হয়েছে বার্ষিক ব্যাংকিং সম্মেলন-২০১৭। বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে। প্রধান অতিথি হিসেবে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। সম্মেলনে ব্যাংকিং খাত সম্পর্কিত দেশি-বিদেশি বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ১২টি গবেষণাপত্র উপস্থাপন ও প্যানেল আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। বিদেশি গবেষণাপত্রের মধ্যে উল্লেখযোগ্য খেলাপি ঋণের প্রভাব শীর্ষক গবেষণাপত্র উপস্থাপন করেন ভারতের মুম্বাইয়ে অবস্থিত ঠাকুর ইন্সটিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ অ্যান্ড রিচার্জের সহযোগী অধ্যাপক ড. চিত্রা গাউন্ডার এবং বুদ্ধিভিত্তিক মূলধন শীর্ষক গবেষণাপত্র উপস্থাপন করেন ভারতের শিলংয়ে অবস্থিত নর্থ ইস্টার্ন হিল ইউনিভার্সিটির বাণিজ্য বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সান্তি গোপাল মাঝি। অধ্যাপক ড. চিত্রা গাউন্ডার বলেন, ভারতেও খেলাপি ঋণ অ্যালার্মিং পর্যায়ে রয়েছে।

গভর্নর ফজলে কবির বলেন, ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ, শীর্ষ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের দায়-দায়িত্ব এবং মূলধন সংরক্ষণে বিভিন্ন ধরনের নীতিমালা করে থাকে বাংলাদেশ ব্যাংক। তিনি বলেন, এ সম্মেলনে যেসব পেপার উপস্থাপন করা হচ্ছে, তার মাধ্যমে ব্যাংকিং খাতের বিভিন্ন বিষয় ওঠে আসছে, যা আমাদের নীতিমালা তৈরিতে ভূমিকা রাখবে।

ট্রাস্ট ব্যাংকের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এএমডি) ফারুক মঈনউদ্দিন আহমেদ বলেন, অধিকাংশ ব্যাংকে খেলাপি ঋণের তথ্য গোপন করে থাকে। বর্তমানে বিতরণকৃত ঋণের ১০ দশমিক ৬৭ শতাংশ খেলাপি ঋণ দেখানো হচ্ছে। যদিও প্রকৃত খেলাপি ২০ শতাংশ ছাড়াবে। তিনি বলেন, ব্যাংকিং খাতে ডিউ ডিলিজেন্স বা নিয়মনীতি সঠিকভাবে পালন করা হচ্ছে না। পাশাপাশি সুশাসনেরও ঘাটতি রয়েছে।

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, খেলাপি ঋণের উপযুক্ত কোনো কারণ স্পষ্ট নয়। কী কারণে খেলাপি ঋণ বাড়ছে, গবেষণাপত্রে সেটি তুলে আনতে হবে। খেলাপি ঋণের ক্ষেত্রে সরকারি ও বেসরকারি, বিশেষ করে বিদেশি ব্যাংকের খেলাপি ঋণের মধ্যে ব্যাপক ফারাক। সরকারি ব্যাংকের উচ্চ খেলাপি কিন্তু বিদেশি ও অধিকাংশ দেশি ব্যাংকের খেলাপি ঋণের হার কম। ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ নাকি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের কারণে খেলাপি ঋণ বাড়ছে, সেটি খতিয়ে দেখতে হবে।

প্যানেল আলোচনায় অংশ নিয়ে বিআইবিএমের সুপারনিউমারারি অধ্যাপক মো. ইয়াছিন আলি বলেন, শরিয়াভিক্তিক ব্যাংকগুলো সঠিকভাবে তাদের নিয়ম পালন করছে না। এ ব্যাংকগুলোর জন্য একটি আইন প্রণয়নের সময় এসেছে। এছাড়া বেসরকারি ব্যাংকগুলোয় ব্যাংকারদের চাকরির কোনো নিরাপত্তা নেই। ব্যাংকারদের চাকরির নিরাপত্তা না দিতে পারলে এ খাতে স্থিতিশীলতা আসবে না। সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিআইবিএমের মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমদ চৌধূরী। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বার্ষিক ব্যাংকিং সম্মেলন ২০১৭ বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শাহ মো. আহসান হাবীব।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর বেলা সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত হয় ‘মাইক্রো ব্যাংকিং এনভায়রনমেন্ট’ শীর্ষক একটি অধিবেশন। এতে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলি রুবাইয়াত উল ইসলাম। দ্বিতীয় অধিবেশনে প্যানেল আলোচনায় সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. ফয়সল আহমেদ। প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন পূবালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও বিআইবএমের সুপারনিউমারারি অধ্যাপক হেলাল আহমেদ চৌধুরী, এনসিসি ব্যাংকের এমডি মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ ও বাংলাদেশ ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটির বিজনেস স্কুলের ডিন ড. সারওয়ার উদ্দিন আহমেদ। প্রথম দিনের সমাপনী সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান।

বিআইবিএমের মহাপরিচালক তৌফিক আহমদ চৌধূরীর সভাপতিত্বে সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি থাকবেন ঢাকা স্কুল অব ইকোনমিকস ও পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। আর বিশেষ অতিথি থাকবেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসকে সুর চৌধুরী। এ অধিবেশনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন বিআইবিএমের একে গঙ্গোপাধ্যায় ও চেয়ার অধ্যাপক খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ। দ্বিতীয় দিনে মধ্যাহ্নভোজের পর ‘ডিজিটাল টেকনোলজিস ফর ড্রাইভিং ফিন্যান্সিয়াল ইনক্লুশন ফর দ্য লাস্ট মাইল : গ্লোবাল পারসপেকটিভ অ্যান্ড বেস্ট প্র্যাকটিসেস’ ও ‘প্রমোটিং ক্লায়েন্ট-সেন্ট্রিক অ্যাপ্রোচেস ইন ডিএফএস : প্রডাক্ট ইনোভেশন ফর লো ইনকাম গ্রুপস অ্যান্ড স্মল বিজনেসেস’ শীর্ষক দুটি সেশন অনুষ্ঠিত হবে।

Comments

Check Also

অনিয়ম-দুর্নীতি ঠেকাতে স্বাধীন ব্যাংকিং কমিশন গঠন করা সময়ের দাবি: মোস্তাফিজুর রহমান

ব্যাংক সেক্টরের অস্থিরতা রোধ ও খেলাপি ঋণ সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেছেন, ব্যাংক খাতকে বিপর্যয় থেকে রক্ষা করতে হলে অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছারিতার লাগাম টানতে হবে এখনই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *