Home / CPD in the Media / সমতা নিশ্চিতে নারীর অর্থনৈতিক মুক্তি জরুরি: দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

সমতা নিশ্চিতে নারীর অর্থনৈতিক মুক্তি জরুরি: দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

Published in প্রথম আলো on Tuesday, 7 March 2017

সিদ্ধান্ত নেওয়ার জায়গায় নারী ও পুরুষের সমতা থাকতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

Dr.-Debapriya-Bhattacharya-for-#HeForSheBDবাংলাদেশে কর্মক্ষেত্রে নারীর সংখ্যা বাড়ছে। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতো জায়গাগুলোয় নারীর সংখ্যা খুবই কম। বিপুলসংখ্যক নারী কাজ করেন, এমন খাতগুলোতেও ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকছেন পুরুষেরাই। নারীর ক্ষমতায়নে পুরুষদের আরও প্রবলভাবে পক্ষে দাঁড়াতে হবে। নেতৃত্ব ও সিদ্ধান্ত নেওয়ার জায়গায় নারী-পুরুষের সমতা থাকতে হবে।

বাংলাদেশে ‘হি ফর শি’ (নারীর পক্ষে পুরুষ) ক্যাম্পেইনের দুবছর উদ্যাপন উপলক্ষে ইউএন উইমেন ও সুইডেন দূতাবাস গতকাল সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে গোলটেবিল বৈঠক আয়োজন করে। এতে আমন্ত্রিত অতিথিরা সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রগুলোতে লিঙ্গসমতার পক্ষে জোর দেন।

সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) বিশেষ ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, নারীর অর্থনৈতিক মুক্তি জরুরি। না হলে সমতা, অধিকার অর্জন সহজ হবে না। নারীরা এমন অনেক কাজ করেন, যার অর্থনৈতিক মূল্য নির্ধারণ করা হয় না। দেশজ মোট আয়ে (জিডিপি) অন্তর্ভুক্ত হয় না।

ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহবুবুর রহমান বলেন, ব্যাংকে প্রচুর নারী কাজ করছেন। আবার কাজ ছেড়েও দিচ্ছেন। তিনি বলেন, তাঁদের ব্যাংকে বহু নারী কাজ করছেন। কিন্তু উচ্চপর্যায়ে নারী নেই বললেই চলে। শুধু তাঁদের ব্যাংকই নয়, ব্যাংকিং খাতে এই অবস্থা চলছে। বৈঠকে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেনের রাষ্ট্রদূত জোহান ফ্রিসেল, ইউএন উইমেনের এ দেশের প্রতিনিধি ক্রিস্টিন হান্টার।

আলোচনায় অংশ নেন বিক্রয় ডটকমের বিপণন বিভাগের পরিচালক মিশা আলী, এশিয়াটিকের নির্বাহী পরিচালক ইরেশ যাকের, জাগো ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা করভি রাখশান্দ প্রমুখ।

 

Comments

Check Also

Dr.-Debapriya-Bhattacharya-for-#HeForSheBD

ভ্যাট আইন পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নে আরও প্রস্তুতি দরকার – ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য

দেশের বাজেট কাঠামো এখন আর শুধু অর্থনীতির মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে রাজনৈতিক অর্থনীতি ও নৈতিকতা। এ ধরনের অর্থনীতিতে ক্ষমতাসীন দল, শক্তিশালী মহল, প্রভাবশালী ব্যক্তি ও গোষ্ঠী কাজ করে। এজন্য তাদের আঘাত দিয়ে বাজেট প্রণয়ন করাকে চ্যালেঞ্জ মনে করে সরকার।