Latest
Home / CPD in the Media / Dr Debapriya Bhattacharya on SDGs

Dr Debapriya Bhattacharya on SDGs

Published in The Financial Express

New global agenda demands new approaches to public policy making
Debapriya at the United Nations

FE Desk

Dr Debapriya Bhattacharya, Distinguished Fellow of the Centre for Policy Dialogue (CPD), moderating a session at the High Level Political Forum (HLPF) of the United Nations in New York Tuesday.

Implementation of the new global development agenda demands balanced integration of economic, social and environmental dimensions in the national policy frameworks. Successful delivery of the Sustainable Development Goals (SDGs) will also need to establish greater coherence within global governance structure.

Dr Debapriya Bhattacharya, Distinguished Fellow of the Centre for Policy Dialogue (CPD) made these comments in New York Tuesday while moderating a session at the High Level Political Forum (HLPF) of the United Nations. Debapriya also chairs Southern Voice on Post-MDGs – a network of 49 think tanks drawn from Asia. Africa and Latin America.

The HLPF has been created under the auspices of the Economic and Social Council (ECOSOC) of the United Nation to provide overall guidance to the implementation of the SDGs – successor to the Millennium Development Goals (MDGs). The HLPF has been also entrusted with the task of monitoring the progress in SDG achievement during the next 15 years and ensuring accountability of the process.

The SDGs envisage a universal, transformative and inclusive development agenda. Debapriya pointed out that public policy interventions and collective actions on the part of the citizens will be critical in meeting the challenges of SDG implementation. In the future, single goal driven approaches will have to be replaced by cluster of goals as to promote synergy among them, to manage spill-overs and to contain the trade-offs. This has to be complemented with institutional reforms and enactment of new legal provisions.

One of the important tasks in this regard will be putting in place monitoring and evaluation mechanisms at national, regional and global levels which can provide evidence-based assessment of the effectiveness of the new agenda.

The HLPF session was chaired by Ambassador of Croatia Vladimir Drobnjak, Vice-President of the Economic and Social Council (ECOSOC) of the United Nation. He observed that implementation of the SDGs has to be managed at multiple levels which should include from local governments to the United Nations itself.The panelists of the session were Ambassador Karel van Osteroom of the Netherlands, Dr Patrick Birungi, Director, National Planning Authority of Uganda and Vice-President of the Czech Parliament MsJaroslavaJermanova.

The lead discussants Mr YayaJunardy, President of the Global Compact Network in Indonesia and Ms Galina Angarova representing the Major Stakeholder Group of the Indigenous People. A large number of delegates from the missions and the capitals as well as from various stakeholder groups took the floor to share their views.

 

Published in Dhaka Tribune

Debapriya: New global agenda needs new approaches to public policy making

Tribune Report

Implementation of the new global development agenda demands balanced integration of economic, social and environmental dimensions in the national policy frameworks.

This was stated by Centre for Policy Dialogue (CPD) distinguished fellow Debapriya Bhattacharya while delivering his speech at the United Nations High Level Political Forum 2015 held in New York on Tuesday.

He said successful delivery of the Sustainable Development Goals (SDGs) will also need to establish greater coherence within global governance structure.

Debapriya also chaired the Southern Voice on Post-MDGs – a network of 49 think tanks drawn from Asia, Africa and Latin America.

The Forum has been created under the auspices of the Economic and Social Council the United Nation to provide overall guidance to the implementation of the SDGs – successor to the Millennium Development Goals (MDGs).

It has been also entrusted with the task of monitoring the progress in SDG achievement during the next 15 years and ensuring accountability of the process. The SDGs envisage a universal, transformative and inclusive development agenda.

Debapriya pointed out that public policy interventions and collective actions on the part of the citizens will be critical in meeting the challenges of SDG implementation.

In the future, single goal driven approaches will have to be replaced by cluster of goals as to promote synergy among them, to manage spillovers and to contain the trade-offs, he said.

“One of the important tasks in this regard will be putting in place monitoring and evaluation mechanisms at national, regional and global levels which can provide evidence-based assessment of the effectiveness of the new agenda.”

The Forum session was chaired by Ambassador of Croatia Vladimir Drobnjak who is also Vice-President of the Economic and Social Council (ECOSOC) of the United Nation.

He observed that implementation of the SDGs has to be managed at multiple levels which should include from local governments to the United Nations itself.

Most of the speakers at the Forum opined that the national governments should create platforms so as to facilitate all stakeholders’ including the public representatives, private sector and non-government organisations’ participation in the SDG implementation process and review mechanism.

The panelists of the session were Ambassador Karel van Osteroom of the Netherlands, Dr Patrick Birungi, director, National Planning Authority of Uganda and Vice-President of the Czech Parliament Ms Jaroslava Jermanova.

The lead discussants were-Yaya Junardy, president of the Global Compact Network in Indonesia and Galina Angarova representing the Major Stakeholder Group of the Indigenous People.

Sadia Faizunessa, deputy permanent representative of Bangladesh to the United Nations emphasised the need for building capacity at all levels so as to face the emerging policy challenges.

 

Published in Daily Sun

METROPOLIS
New global agenda demands new approaches: Debapriya

Eminent economist Dr Debapriya Bhattacharya has said implementation of the new global development agenda demands balanced integration of economic, social and environmental dimensions in the national policy frameworks UNB.

“Successful delivery of the Sustainable Development Goals (SDGs) will also need to establish greater coherence within global governance structure,” he said while moderating a session at the High Level Political Forum (HLPF) of the United Nations in New York on Wednesday.

Dr Debapriya Bhattacharya, a senior fellow of the Centre for Policy Dialogue (CPD), also chaired the Southern Voice on Post-MDGs – a network of 49 think tanks drawn from Asia, Africa and Latin America.

The HLPF has been created under the auspices of the Economic and Social Council (ECOSOC) of the United Nation to provide overall guidance to the implementation of the SDGs – successor to the Millennium Development Goals (MDGs). The HLPF has been also entrusted with the task of monitoring the progress in SDG achievement during the next 15 years and ensuring accountability of the process.

The SDGs envisage a universal, transformative and inclusive development agenda, said a CPD press release.

Debapriya pointed out that public policy interventions and collective actions on the part of the citizens will be critical in meeting the challenges of SDG implementation.

“In the future, single goal driven approaches will have to be replaced by cluster of goals as to promote synergy among them, to manage spillovers and to contain the trade-offs,” he said, adding that this has to be complemented with institutional reforms and enactment of new legal provisions.

The CPD fellow said one of the important tasks in this regard will be putting in place monitoring and evaluation mechanisms at national, regional and global levels, which can provide evidence-based assessment of the effectiveness of the new agenda.

Chaired by Ambassador of Croatia and ECOSOC Vice-President Vladimir Drobnjak, the HLPF session was addressed, among others, by Ambassador Karel van Osteroom of the Netherlands, director of National Planning Authority of Uganda Dr Patrick Birungi and Vice-President of the Czech Parliament Jaroslava Jermanova.

 

Published in The Independent

In the future, single goal driven approaches will have to be replaced by cluster of goals as to promote synergy among them, to manage spillovers and to contain the trade-offs – Debapriya Bhattacharya, a senior fellow of CPD.

‘New global agenda demands new approaches’

UNB

Eminent economist Debapriya Bhattacharya has said implementation of the new global development agenda demands balanced integration of economic, social and environmental dimensions in the national policy frameworks, reports UNB.

“Successful delivery of the Sustainable Development Goals (SDGs) will also need to establish greater coherence within global governance structure,” he said while moderating a session at the High Level Political Forum (HLPF) of the United Nations in New York yesterday.

Debapriya Bhattacharya, a senior fellow of the Centre for Policy Dialogue (CPD), also chaired the Southern Voice on Post-MDGs – a network of 49 think tanks drawn from Asia, Africa and Latin America.

The HLPF has been created under the auspices of the Economic and Social Council (ECOSOC) of the United Nation to provide overall guidance to the implementation of the SDGs – successor to the Millennium Development Goals (MDGs).

The HLPF has been also entrusted with the task of monitoring the progress in SDG achievement during the next 15 years and ensuring accountability of the process.

The SDGs envisage a universal, transformative and inclusive development agenda, said a CPD press release.

Debapriya pointed out that public policy interventions and collective actions on the part of the citizens will be critical in meeting the challenges of SDG implementation.

“In the future, single goal driven approaches will have to be replaced by cluster of goals as to promote synergy among them, to manage spillovers and to contain the trade-offs,” he said, adding that this has to be complemented with institutional reforms and enactment of new legal provisions.

The CPD fellow said one of the important tasks in this regard will be putting in place monitoring and evaluation mechanisms at national, regional and global levels, which can provide evidence-based assessment of the effectiveness of the new agenda. Chaired by Ambassador of Croatia and ECOSOC Vice-President Vladimir Drobnjak.

 

Published in News Today

New global agenda demands new approaches: Debapriya

Eminent economist Dr Debapriya Bhattacharya has said implementation of the new global development agenda demands balanced integration of economic, social and environmental dimensions in the national policy frameworks, reports UNB.

“Successful delivery of the Sustainable Development Goals (SDGs) will also need to establish greater coherence within global governance structure,” he said while moderating a session at the High Level Political Forum (HLPF) of the United Nations in New York on Wednesday.

Dr Debapriya Bhattacharya, a senior fellow of the Centre for Policy Dialogue (CPD), also chaired the Southern Voice on Post-MDGs – a network of 49 think tanks drawn from Asia, Africa and Latin America.

The HLPF has been created under the auspices of the Economic and Social Council (ECOSOC) of the United Nation to provide overall guidance to the implementation of the SDGs – successor to the Millennium Development Goals (MDGs).

The HLPF has been also entrusted with the task of monitoring the progress in SDG achievement during the next 15 years and ensuring accountability of the process. The SDGs envisage a universal, transformative and inclusive development agenda, said a CPD press release.

Debapriya pointed out that public policy interventions and collective actions on the part of the citizens will be critical in meeting the challenges of SDG implementation. “In the future, single goal driven approaches will have to be replaced by cluster of goals as to promote synergy among them, to manage spillovers and to contain the trade-offs,” he said, adding that this has to be complemented with institutional reforms and enactment of new legal provisions.

The CPD fellow said one of the important tasks in this regard will be putting in place monitoring and evaluation mechanisms at national, regional and global levels, which can provide evidence-based assessment of the effectiveness of the new agenda.

Chaired by Ambassador of Croatia and ECOSOC Vice-President Vladimir Drobnjak, the HLPF session was addressed, among others, by Ambassador Karel van Osteroom of the Netherlands, director of National Planning Authority of Uganda Dr Patrick Birungi and Vice-President of the Czech Parliament Jaroslava Jermanova.

 

Published in Prothom Alo

জাতিসংঘে দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য
বৈশ্বিক উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে সমন্বিত কৌশল দরকার

বাণিজ্য ডেস্ক

নতুন বৈশ্বিক উন্নয়ন কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের জন্য জাতীয় নীতিকাঠামোতে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পরিবেশগত বিষয়গুলো যথাযথভাবে অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন। একই সঙ্গে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসমূহ (এসডিজি) অর্জনে বৈশ্বিক শাসনকাঠামোকে আরও সমন্বিত করাটাও গুরুত্বপূর্ণ।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামের (এইচএলপিএফ) একটি অধিবেশন সঞ্চালনকালে বাংলাদেশের বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) সম্মানীয় ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এ মন্তব্য করেন। অধিবেশনটির মূল আলোচ্য বিষয় ছিল ‘নতুন ধারার নীতি প্রণয়ন কৌশলে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ভূমিকা’।

অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির ড্রবনাক। এতে প্যানেল আলোচক ছিলেন নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত ক্যারেল ভ্যান অস্টেরুম, উগান্ডার জাতীয় পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষের পরিচালক প্যাট্রিক বিরুঙ্গি, চেকোস্লোভাকিয়ার সংসদের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইয়ারোস্লাভা ইয়ার্মানোভা, ইন্দোনেশিয়ার গ্লোবাল কমপ্যাক্ট নেটওয়ার্কের প্রেসিডেন্ট ইয়াইয়া জুনার্দি ও আদিবাসী জনগণের পক্ষ থেকে গালিনা আঙ্গারোভা। এ ছাড়া জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী উপপ্রতিনিধি সাদিয়া ফাইজুন্নেসাসহ বিভিন্ন দূতাবাসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, এসডিজি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া ও তার মূল্যায়নে জনপ্রতিনিধি, ব্যক্তি খাত ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করতে হবে। এ জন্য জাতীয় পর্যায়ে একটি উপযুক্ত প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা দরকার।

সাদিয়া ফাইজুন্নেসা বলেন, ক্রমবিকাশমান নীতি-চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সমতা সৃষ্টি করতে হবে। এ জন্য নজর দিতে হবে সম্পদ আহরণের দিকে।

ভ্লাদিমির ড্রবনাক বলেন, নতুন ধারার নীতি প্রণয়ন প্রক্রিয়াটি বহু পর্যায়ভিত্তিক। এতে স্থানীয় সরকার থেকে শুরু করে জাতিসংঘ পর্যন্ত সব পর্যায়ের সংশ্লিষ্টতা থাকতে হবে।

দেবপ্রিয় বলেন, ভবিষ্যতে নতুন উন্নয়ন এজেন্ডা অর্জন করতে হলে আগের মতো বিচ্ছিন্নভাবে লক্ষ্যভিত্তিক কৌশল নির্ধারণ যথেষ্ট হবে না, বরং পারস্পরিক সম্পর্কযুক্ত উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ অর্জনে সমন্বিত কৌশল নির্ধারণ করতে হবে। পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কার ও নতুন আইনি উদ্যোগেরও প্রয়োজন পড়বে।

এ ক্ষেত্রে জাতীয়, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক পর্যায়ে যথাযথ পরিবীক্ষণ ও পর্যালোচনা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা দরকার বলে দেবপ্রিয় উল্লেখ করেন।

দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বর্তমানে এশিয়া, আফ্রিকা ও লাতিন আমেরিকার ৪৯টি থিংক ট্যাঙ্ক বা গবেষণা সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত নেটওয়ার্ক সাউদার্ন ভয়েস অন পোস্ট এমডিজিস-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এমডিজি) উত্তরসূরি হিসেবে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের জন্য সার্বিক দিকনির্দেশনা দেওয়ার লক্ষ্যে জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের আওতায় এই উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামটি (এইচএলপিএফ) গঠিত। এই ফোরামের মূল দায়িত্ব হলো আগামী ১৫ বছর এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় জবাবদিহি নিশ্চিত করা।

 

Published in Manabzamin

নতুন বৈশ্বিক উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দরকার নতুন নীতি প্রণয়ন কৌশল: জাতিসংঘে দেবপ্রিয়

অর্থনৈতিক রিপোর্টার

নতুন বৈশ্বিক উন্নয়ন কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজন জাতীয় নীতি কাঠামোর ভেতরে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পরিবেশগত বিষয়গুলোর যথাযথ অন্তর্ভুক্তীকরণ। একই সঙ্গে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজিস-সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস) অর্জনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হবে বৈশ্বিক শাসন কাঠামোকে আরও সমন্বিত করা।

মঙ্গলবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামের (এইচএলপিএফ-হাই লেভেল পলিটিক্যাল ফোরাম) একটি সেশন সঞ্চালনকালে সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগের (সিপিডি) সম্মানীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এ মন্তব্য করেন। সেশনের মূল আলোচ্য বিষয় ছিল ‘নতুন ধারার নীতি প্রণয়ন কৌশলে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ভূমিকা’। উল্লেখ্য, ড. দেবপ্রিয় এশিয়া, আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার ৪৯টি থিঙ্ক ট্যাঙ্কের সমন্বয়ে গঠিত নেটওয়ার্ক সাউদার্ন ভয়েস অন পোস্ট-এমডিজিস-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

সহস্রাব্দের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এমডিজি-মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোলস) উত্তরসূরী হিসেবে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের জন্য সার্বিক দিকনির্দেশনা দেয়ার লক্ষ্যে জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদ (ঊঈঙঝঙঈ) এর আওতায় এ উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামটি (এইচএলপিএফ) গঠিত হয়েছে। এ ফোরামের মূল দায়িত্ব হবে আগামী ১৫ বছর ধরে এসডিজি অর্জনের অগ্রগতি নিরীক্ষণ করা এবং এ লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে জবাবদিহি নিশ্চিত করা। মনে করা হয়, এসডিজিগুলো একটি সার্বজনীন কর্মসূচির মাধ্যমে রূপান্তরমুখী এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নকে বেগবান করবে।

ড. দেবপ্রিয় বলেন, এ ধরনের একটি কর্মসূচির সাফল্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক হবে যথাযথ রাষ্ট্রীয় নীতি প্রণয়ন এবং জনগণের সামষ্টিক উদ্যোগ। আগামীতে নতুন উন্নয়ন এজেন্ডা অর্জন করতে হলে পূর্বের মতো বিচ্ছিন্নভাবে লক্ষ্যভিত্তিক কৌশল নির্ধারণ যথেষ্ট হবে না, বরং পারস্পরিক সম্পর্কযুক্ত উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহকে অর্জনের লক্ষ্যে সমন্বিত কৌশল নির্ধারণ করতে হবে। এর ফলে বিভিন্ন লক্ষ্যের পারস্পরিক মিথষ্ক্রিয়ার মাধ্যমে ইতিবাচক ফলাফল অর্জনের সুযোগ বৃদ্ধি পাবে এবং নেতিবাচক অবস্থা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এগুলোর পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কার এবং নতুন আইনী উদ্যোগ নেয়ারও প্রয়োজন পড়বে।

এক্ষেত্রে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হবে জাতীয়, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক পর্যায়ে যথাযথ পরিবীক্ষণ ও পর্যালোচনা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা যা নতুন উন্নয়ন কর্মসূচির কার্যকারিতার ব্যাপারে প্রমাণ-ভিত্তিক মূল্যায়ন প্রদান করবে।

উচ্চ পর্যায়ের রাজনীতিক ফোরামের সেশনটিতে সভাপতিত্ব করেন জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ক্রোয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভ্লাদিমির ড্রবনাক। তিনি বলেন, নতুন ধারার নীতি প্রণয়ন প্রক্রিয়াটি বহুপর্যায়ভিত্তিক, যাতে স্থানীয় সরকার থেকে শুরু করে জাতিসংঘ পর্যন্ত সব পর্যায়ের সংশ্লিষ্টতা থাকতে হবে।

সেশনের প্যানেলিস্টদের আলোচকদের মধ্যে ছিলেন নেদারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত ক্যারেল ভ্যান অস্টেরুম, উগান্ডার জাতীয় পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষের পরিচালক ড. প্যাট্রিক বিরুঙ্গি, চেক প্রজাতন্ত্রের সংসদের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইয়ারোস্লাভা ইয়ার্মানোভা। ইন্দোনেশিয়ার গ্লোবাল কম্প্যাক্ট নেটওয়ার্কের প্রেসিডেন্ট ইয়াইয়া জুনার্দি এবং আদিবাসী জনগণের অংশী গ্রুপের পক্ষ থেকে গালিনা আঙ্গারোভা মূল আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

এ ছাড়া সেশনে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘের বিভিন্ন দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ ও অন্যান্য অংশী গ্রুপের প্রতিনিধিবর্গ। জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী উপ-প্রতিনিধি সাদিয়া ফাইজুন্নেসা বলেন, ক্রমবিকাশমান নীতি চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সক্ষমতা সৃষ্টি করতে হবে। এ লক্ষ্যে সম্পদ সমাবেশের দিকে নজর দিতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 

Published in Samakal

এসডিজি অর্জনে প্রয়োজন নতুন নীতিকৌশল

শিল্প ও বাণিজ্য ডেস্ক

নতুন বৈশ্বিক উন্নয়ন কর্মসূচি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) সফল বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজন জাতীয় নীতিকাঠামোর ভেতরে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পরিবেশগত বিষয়গুলোর যথাযথ অন্তর্ভুক্তিকরণ। একই সঙ্গে এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ হবে বৈশ্বিক শাসনকাঠামোকে আরও সমন্বিত করা। মঙ্গলবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামের একটি সেশন সঞ্চালনকালে সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগের (সিপিডি) বিশেষ ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য এ মন্তব্য করেন। সিপিডি গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানিয়েছে। সেশনের মূল আলোচ্য বিষয় ছিল ‘নতুন ধারার নীতি প্রণয়ন কৌশলে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ভূমিকা’। ড. দেবপ্রিয় এশিয়া, আফ্রিকা ও লাতিন আমেরিকার ৪৯টি থিঙ্ক ট্যাঙ্কের সমন্বয়ে গঠিত নেটওয়ার্ক সাউদার্ন ভয়েস অন পোস্ট-এমডিজিস-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এমডিজি) উত্তরসূরি হিসেবে এসডিজি বাস্তবায়নের জন্য সার্বিক দিকনির্দেশনা দেওয়ার লক্ষ্যে জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের আওতায় এই উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক ফোরামটি (এইচএলপিএফ) গঠিত হয়েছে। এই ফোরামের মূল দায়িত্ব হবে আগামী ১৫ বছর ধরে এসডিজি অর্জনের অগ্রগতি নিরীক্ষণ করা এবং এ লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে জবাবদিহি নিশ্চিত করা। ড. দেবপ্রিয় বলেন, এ ধরনের একটি কর্মসূচির সাফল্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক হবে যথাযথ রাষ্ট্রীয় নীতি প্রণয়ন এবং জনগণের সামষ্টিক উদ্যোগ। আগামীতে নতুন উন্নয়ন এজেন্ডা অর্জন করতে হলে পূর্বের মতো বিচ্ছিন্নভাবে লক্ষ্যভিত্তিক কৌশল নির্ধারণ যথেষ্ট হবে না। বরং পারস্পরিক সম্পর্কযুক্ত উন্নয়ন লক্ষ্যগুলো অর্জনের লক্ষ্যে সমন্বিত কৌশল নির্ধারণ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হবে জাতীয়, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক পর্যায়ে যথাযথ পরিবীক্ষণ ও পর্যালোচনা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা, যা নতুন উন্নয়ন কর্মসূচির কার্যকারিতার ব্যাপারে প্রমাণ-ভিত্তিক মূল্যায়ন করবে। উচ্চ পর্যায়ের রাজনীতিক ফোরামের সেশনটিতে সভাপতিত্ব করেন জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ক্রোয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভ্লাদিমির ড্রবনাক। তিনি বলেন, নতুন ধারার নীতি প্রণয়ন প্রক্রিয়াটি বহুপর্যায়ভিত্তিক, যাতে স্থানীয় সরকার থেকে শুরু করে জাতিসংঘ পর্যন্ত সব পর্যায়ের সংশ্লিষ্টতা থাকতে হবে। সেশনের প্যানেলিস্ট আলোচকদের মধ্যে ছিলেন নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত ক্যারেল ভ্যান অস্টেরম, উগান্ডার জাতীয় পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষের পরিচালক ড. প্যাট্রিক বিরুঙ্গি, চেক প্রজাতন্ত্রের সংসদের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইয়ারোস্নাভা ইয়ার্মানোভা, ইন্দোনেশিয়ার গ্গ্নোবাল কম্প্যাক্ট নেটওয়ার্কের প্রেসিডেন্ট ইয়াইয়া জুনার্দি এবং আদিবাসী জনগণের অংশী গ্রুপের পক্ষ থেকে গালিনা আঙ্গারোভা মূল আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত বক্তারা বলেন, এসডিজি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া ও তার মূল্যায়নের সঙ্গে জনপ্রতিনিধি, ব্যক্তি খাত এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করতে হবে এবং তারা আরও বলেন, এ লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ে একটি উপযুক্ত প্লাটফর্ম তৈরি করতে হবে।

Comments

Check Also

cpd-undp-concessional-financial-flows-among-southern-countries

Concessional Financial Flows among Southern Countries

The Centre for Policy Dialogue (CPD), in partnership with the United Nations Development Programme (UNDP) …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *